রোববার   ২৪ অক্টোবর ২০২১   কার্তিক ৯ ১৪২৮   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জিততে ভুলে গেছে বার্সা!

স্টার ভয়েস ২৪

প্রকাশিত: ২ নভেম্বর ২০২০  

রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে ‘এল ক্লাসিকো’ হারের ক্ষতে আলাভেসকে হারিয়ে ক্ষতে প্রলেপ লাগাবেন কী, আবারও পয়েন্ট হারানোর আক্ষেপ আর বিরক্তি ঘিরে ধরল মেসিদের। ১৯ জুলাই গত লিগের শেষ ম্যাচে যাদের ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল বার্সেলোনা, শনিবার তাদের মাঠে ১-১ গোলে ড্র করেছে তারা। এ নিয়ে টানা ৪ লিগ ম্যাচ জয়শূন্য কাটল তাদের। ৬ ম্যাচে ২ জয় ও ২ ড্রতে ৮ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার ১২ নম্বরে রোনাল্ড কোম্যানের দল। ২০০২-০৩ সালের পর লা লিগায় এত বাজে শুরু আর কখনোই হয়নি বার্সেলোনার। সেবার প্রথম ৬ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট পাওয়ার বার্সা শেষ পর্যন্ত ষষ্ঠ হয়েছিল লিগে।

অথচ চ্যাম্পিয়নস লিগে এই দলটিই অসাধারণ গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। ফেরেঙ্কভারোসকে উড়িয়ে দেওয়ার পর জুভেন্টাসে গিয়ে ২-০ গোলের জয় নিয়ে ফিরেছে। বুধবার ডায়নামো কিয়েভের সঙ্গে তৃতীয় ম্যাচ খেলবে তারা।

শনিবার বার্সার হয়ে মৌসুমের প্রথম গোল পেয়েছেন অ্যান্তোইন গ্রিজমান। ছন্দে ফেরার আভাস দিয়েছেন। খেলেছেনও দারুণ। মাঝ মাঠের নিয়ন্ত্রণও ছিল তাদেরই। কিন্তু ৩১ মিনিটে গোলরক্ষক নেতোর একটি অমার্জনীয় ভুলে পিছিয়ে পড়ে দলটি। পিকের ব্যাকপাস ঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণে নিতে পারেননি নেতো। তার কাছ থেকে বল কেড়ে জালে প্রবেশ করান রিওজা। ৬৩তম মিনিটে বড় ধাক্কা খায় আলাভেজ। দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে বহিষ্কার হন জোতা। আর পরের মিনিটেই সমতায় ফেরে বার্সেলোনা। ডিফেন্ডারের ভুলে ডি-বক্সে ফাঁকায় বল পেয়ে যান গ্রিজমান। দারুণ দক্ষতায় গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে আলতো চিপে লক্ষ্যভেদ করেন এই ফরাসি।

এরপর অনেক আক্রমণ করেছে, ফিনিশিংয়ের অভাবে সেগুলো থেকে গোল পায়নি বার্সেলোনা। শেষ দিকে মুহুর্মুহু আক্রমণ করে তারা। মেসি ও বদলি খেলোয়াড় দেস্তের একের পর এক শট ঠেকিয়ে দেন আলাভেস গোলরক্ষক।

এত সুযোগ হারালে কীভাবে হবে, ভেবে পাচ্ছেন না কোম্যান। ফরোয়ার্ডদের সুযোগ হাতছাড়ার মহড়ায় হাতছাড়া হয়ে গেছে লা লিগায় জয়ে ফেরার সুযোগ। ৮০ শতাংশ বলের দখল রেখে গোলের উদ্দেশে ২৫ শট নিয়েও জয় না পাওয়ায় ভীষণ হতাশ কোচ কোম্যান, ‘প্রথমার্ধ নিয়ে আমি খুশি ছিলাম না, আমাদের কয়েকজন কার্ড পেয়েছিল। (বিরতির সময়) তিনটি পরিবর্তন এনেছিলাম কারণ আমি খুশি ছিলাম না।  কারণ, খেলোয়াড়দের মনোভাব বা মনোযোগ নয়, বরং আরও গোল না পাওয়ার কারণে। জুভেন্তাসসের বিপক্ষেও এই সমস্যা ছিল। এত বেশি সুযোগ হাতছাড়া করাটা আমরা মেনে নিতে পারি না। দ্বিতীয়ার্ধে আমরা জুভেন্তাস ম্যাচের মতোই তুলনামূলক ভালো ছন্দে ছিলাম। তবে আমাদের আরও গোল করতে হবে, এটা যথেষ্ট নয়। অসংখ্য সুযোগ তৈরি করে যদি মাত্র একটা গোল হয়, এটা ভালো নয়।’

 

স্টার ভয়েস ২৪
স্টার ভয়েস ২৪
এই বিভাগের আরো খবর